সৌদি আরবে; নিরাপরাধ শিয়াদেরকে শিরশ্ছেদের ঘটনায় মাজমার নিন্দা

  • Posted: 01/05/2019

বিবৃতি প্রদান করে সৌদি আরবে ৩৭ জন শিয়া মুসলিমের শিরশ্ছেদের নিন্দা জানিয়েছে আহলে বাইত (আ.) বিশ্বসংস্থা (মাজমা)।

আরবিতে প্রকাশিত মূল বিবৃতিটির অনুবাদ:

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম

«وَما نَقَموا مِنهُم إِلّا أَن يُؤمِنوا بِاللَّهِ العَزيزِ الحَميد»

‘তারা তাদেরকে শাস্তি দিয়েছিল শুধু এ কারণে যে, তারা প্রশংসিত, পরাক্রান্ত আল্লাহর প্রতি বিশ্বাস স্থাপন করেছিল’। (সূরা বুরুজ : ৮)

সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যের ইয়েমেন, সিরিয়া ও ইরাকের নিরীহ জনগণের উপর নৃশংস আগ্রাসন ও সন্ত্রাসী হামলার ধারাবাহিকতায় আরও একটি অমানবিক অপরাধকর্ম ঘটিয়েছে স্বৈরাচারী শাসক গোষ্ঠী আলে সৌদ। এর মাধ্যমে সৌদি শাসকরা মানবতা বিরোধী তাদের অত্যাচারের কালো ইতিহাসের পাতায় আরও একটি পৃষ্ঠা যুক্ত করলো। ফ্যাসাদ সৃষ্টিকারী ঐ শাসক গোষ্ঠী ৩৭ জন নিরীহ মানুষকে শিরশ্ছেদ করে তাদের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করেছে। এর মাঝে ৩৩ জন কাতিফ ও আশ-শারকিয়া অঞ্চলের বাসিন্দা। শুধু বাক স্বাধীনতা ও শান্তিপূর্ণ জীবন-যাপনের সুযোগ ছাড়া যাদের আর কোন দাবী ছিল না।

মুজাহিদ শহীদ শাইখ নিমর বাকের নিমরকে হত্যা এবং ইয়েমেনের অসহায় জনগণের বিরুদ্ধে আগ্রাসনসহ আরব্য উপদ্বীপে যে সকল অপকর্ম ও অত্যাচারের নজির রেখে চলেছে তারই ধারাবাহিকতায় এ স্বৈচ্ছাচারী পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে স্বৈরাচারী আলে সৌদ। ইয়েমেনের জনগণ দীর্ঘ ৭ বছর ধরে প্রতিনিয়ত আলে সৌদের নৃশংস হামলার শিকার হচ্ছে। এ সকল হামলায় অত্যাচারী আলে সৌদ বাহিনী ইয়েমেনের শিশু, নারী ও বৃদ্ধদেরকে নৃশংসভাবে হত্যা করছে।

আমরা আহলে বাইত (আ.) বিশ্বসংস্থার পক্ষ থেকে কাতিফ, আল-আহসা ও মদিনা মুনাওয়ারাসহ সৌদি আরবের অন্যান্য বঞ্চিত ও নির্যাতিত অঞ্চলে বসবাসরত অসহায় জনগণের প্রতি সমবেদনা জানানোর পাশাপাশি এ ধরনের অমানবিক ও বর্বর আচরণের নিন্দা জানাচ্ছি।

এছাড়া মুসলিম ওলামা ও আন্তর্জাতিক সংস্থাসমূহসহ বিশ্বের মুক্তিকামী ব্যক্তিত্বদের প্রতি এ সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের নিন্দা জানানোর আহবান জানাচ্ছি। যে কর্মকাণ্ডে মহান আল্লাহর সন্তুষ্টি না থাকলেও সন্তুষ্ট হয়েছে জায়নবাদী ইসরাইল এবং বড় শয়তান (আমেরিকা)।

স্বৈরাচারী আলে সৌদের উপর চাপ প্রয়োগ করার লক্ষ্যে আন্তর্জাতিক সমাজের প্রতি আহবান জানায় মাজমা, যাতে দেশটির ধৈর্যশীল নিরীহ জনগণের বিরুদ্ধে এ ধরণের পদক্ষেপ নেয়ার ধৃষ্টতা আর তারা না দেখায়। ইন্না লিল্লাহ ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন।

«وَإِذا تَوَلّىٰ سَعىٰ فِي الأَرضِ لِيُفسِدَ فيها وَيُهلِكَ الحَرثَ وَالنَّسلَ وَاللَّهُ لا يُحِبُّ الفَساد»

‘যখন ফিরে যায় তখন চেষ্টা করে যাতে সেখানে অকল্যাণ সৃষ্টি করতে পারে এবং শস্যক্ষেত্র ও প্রাণনাশ করতে পারে। আল্লাহ্ ফাসাদ ও দাঙ্গা-হাঙ্গামা পছন্দ করেন না’ (বাকারাহ : ২০৫)

আহলে বাইত (আ.) বিশ্বসংস্থা (মাজমা)

১৭ শাবান, ১৪৪০

৩ উর্দিবেহেশ্‌ত ১৩৯৮, ২৩ এপ্রিল ২০১৯

বলাবাহুল্য, সৌদি আরবের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় গত মঙ্গলবার এদেশের ৩৭ জন নাগরিকের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করার সংবাদ প্রকাশ করে। যাদের মধ্যে ৩৩ জন ছিল আহলে বাইত (আ.) এর মাযহাবের অনুসারী।

যে সকল ব্যক্তিদেরকে হত্যা করা হয়েছে, তাদের বেশিরভাগকেই আল-শারকিয়া প্রদেশ থেকে শান্তিপূর্ণ মিছিলে অংশগ্রহণের অভিযোগে আটক করা হয়। আটককৃত এ সকল ব্যক্তিদের জন্য গোপনে বিচারকার্য সম্পন্ন হয়েছে এবং এ সকল ব্যক্তিদের কাছ থেকে জোরপূর্বক স্বীকারোক্তি আদায়ের অভিযোগও পাওয়া গেছে। রাজনৈতিক অজুহাত তুলে তাদের বিরুদ্ধে এ রায় প্রদান করেছে মানবতা বিরোধী স্বৈরাচারী এ শাসক গোষ্ঠী।

বিশিষ্ট আলেম শাইখ ‘মুহাম্মাদ আব্দুল গানি আল-আতিয়াহ’কেও ঐ সকল ব্যক্তিদের সাথে হত্যা করা হয়েছে। শাইখ নিমর বাকের আন-নিমরের পর তিনি হচ্ছে সৌদি আরবের দ্বিতীয় আলেম যাকে স্বৈরাচারী আলে সৌদ শহীদ করেছে। সৌদি সরকারের মাযহাবগত বৈষম্য নীতির বিরোধিতা করার কারণে ২০১৬ সালে শাইখ নিমরকে হত্যা করা হয়।###

সুত্রঃ আহলে বাইত (আ.) বার্তা সংস্থা (আবনা)

Share: